ইন্টারনেট ডাটা সাশ্রয়ের গোপনীয় টিপস

 


বর্তমান ইন্টারনেট খরচ বাড়ার এই দিনে ডেটা বাঁচানোর কৌশল জানা থাকলে আর্থিকভাবে অনেকটা লাভবান হওয়া যাবে। আর তাতে ফেইসবুক, ইউটিউবের মতো অ্যাপও চালাতে পারবেন একদম নির্বিঘ্নে। তাহলে চলুন, ডাটা বাঁচানোর কৌশলগুলো দেখে নেই ।


ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ক বা ওয়াইফাই :


আপনারা যারা নিয়মিত ভিডিও দেখেন তারা খরচ বাঁচাতে চাইলে মোবাইল ডেটার পরিবর্তে ওয়াইফাই ব্যবহার করবেন। যারা স্পটিফাই, নেটফ্লিক্স কিংবা ইউটিউব চালান, তারা মোবাইল ফোনে (বিশেষ করে অ্যান্ড্রয়েড) না দেখে কম্পিউটার, ল্যাপটপে দেখবেন। তাতে ডেটা বাঁচবে।


মোবাইল ডেটা লিমিটিং:


আপনি নির্দিষ্ট অ্যাপের ক্ষেত্রে ডেটা অ্যাকসেস সীমাবদ্ধ করে দিতে পারেন। এর ফলে অ্যাপ ব্যাকগ্র্যাউন্ডে সচল থাকলেও ডেটা কাটবে না। এটি করতে হলে অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের সেটিংস অ্যাপে যেতে হবে আপনার ।


এবার আপনি ‘Apps’ এ ক্লিক করুন। যে অ্যাপের ডেটা লিমিট করতে চান, সেই অ্যাপে ক্লিক করুন। এরপর ‘Mobile data’ অপশনে ক্লিক করুন। মোবাইলের ব্যাকগ্রাউন্ড ডেটা চালু থাকলে ‘Allow background data usage’ সাদা এবং সবুজ দেখাবে। আর বন্ধ থাকলে শুধু সাদা থাকবে।


অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ডেটা লিমিট: আপনি আরও একটু শক্ত পদক্ষেপ নিতে অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের ডেটা লিমিট করে দিতে পারেন। এটিও সেটিংসে গিয়েই করতে হবে। নিচে বর্ণিত পদক্ষেপগুলো অনুসরণ করুন : 


১. প্রথমে সেটিংস অ্যাপ ওপেন করুন।


২. এরপর ‘Connections’-এ ট্যাপ করুন।


৩. এরপর ‘Data usage’-এ ট্যাপ করুন।


৪. তারপর ‘Mobile data usage-এ ট্যাপ করুন।


৫. সবশেষে ডানদিকের উপরের কোনায় গিয়ার আইকনে ক্লিক করুন।


এখানে আপনি ‘ডেটা ওয়ার্নিং’ সেট করতে পারবেন। আপনার ডেটা শেষ হয়ে গেলে সতর্কবার্তা পাবেন। এর পাশাপাশি লিমিট করতে পারবেন ডেটা । অর্থাৎ আপনার নির্ধারণ করে দেয়া ডেটা শেষ হয়ে গেলে ডিভাইসে অনলাইন অফ হয়ে যাবে স্বয়ংক্রিয়ভাবে।


এন্ড্রয়েড ডেটা সেভার মোড:


যদি উপরের কৌশলগুলো আপনার ফোনে কাজ না করে সেক্ষেত্রে ডেটা সেভার মোড চালু করতে পারেন। এর ফলে ডিভাইসের কোনো অ্যাপ ব্যাকগ্রাউন্ড ডেটা নিতে পারবে না। এতে অবশ্য কিছু কিছু অ্যাপ কিন্তু ঠিকমতো কাজ করবে না। এন্ড্রয়েড ডেটা সেভিং মোড় চালু করতে নিচের পদ্ধতির অনুসরণ করুন :


১. প্রথমে সেটিংস অ্যাপ ওপেন করুন।


২. এরপর ‘Connections’-ট্যাপ করুন।


৩. এরপর ‘Data usage-ট্যাপ করুন।


৪. এরপর 'Data saver’ –ট্যাপ করুন।


৫. আপনার ডেটা সেভার মোড অফ থাকলে স্লাইডার সাদা দেখাবে। ডেটা সেভার মোড অন করতে স্লাইডারে ক্লিক করুন। এতে আপনার স্লাইডার সাদা এবং নীল হয়ে যাবে।


ফেসবুকের ডেটা বাঁচানোর কলাকৌশল :


ফেসবুকে কম ডেটা খরচ করতে হলে নিজের ফোন থেকে সেটিংস অপশনে যেতে হবে। এরপর স্ক্রল করে নিচে যেতে থাকলে ‘Media and Contacts’ নামের একটি অপশন দেখতে পাবেন।


এখানে ফটো কোয়ালিটি সাধারণত ‘হাই’ হয়ে থাকে। ফটো কোয়ালিটি মিডিয়াম কিংবা ‘লো’ করে দিলে ডেটা কম খরচ হবে। তাতে অবশ্য ছবির মান একটু খারাপ হবে আর কিছুটা ঘোলাও হতে পারে ।


ডেটা সেভার মোড : ফোনের সেটিংসে গিয়ে ‘ডেটা ইউজেস’ অপশন থেকে ডেটা সেভার অফ করে দিতে পারেন।


ফেইসবুক লাইট ব্যবহার : ডেটা ব্যবহার একেবারে কমিয়ে আনা সম্ভব ফেইসবুক অ্যাপ ও মেসেঞ্জারের লাইট সংস্করণ ব্যবহারের মাধ্যমে। ফেসবুকের মূল ব্রাউজার ও মূল মেসেঞ্জার থেকে অর্ধেকের কম ডেটা খরচ করে ফেসবুক লাইট ও মেসেঞ্জার লাইট । ফেসবুক লাইট ও মেসেঞ্জার লাইট গুগল প্লেতেই পাওয়া যাবে। ডাউনলোড করা যাবে বিনামূল্যে ।


ফেসবুক অ্যাকাউন্ট লগ আউট করে রাখা: স্মার্টফোনের অ্যাপে ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট লগ-ইন করা থাকলে এটি কিছু না কিছু ডেটা ব্যবহার করতেই থাকে। তাই প্রয়োজন না থাকলে অ্যাকাউন্ট লগ-আউট করে রাখার মাধ্যমে ইন্টারনেট খরচ বাঁচানো যায় অনেকাংশে ।



Post a Comment (0)
Previous Post Next Post